Advertisements

ওয়ালটন ফ্রিজ ১৪ সেফটি দাম ২০২২

Advertisements
4.8/5 - (53 votes)

নমস্কার বন্ধুরা আশা করছি আপনারা প্রত্যেকেই ভালো আছেন ও সুস্থ আছেন। বন্ধুরা আপনাদের চাহিদা মত আজ আমরা ওয়ালটন ফ্রিজ 8CFT এর বাংলাদেশে বর্তমান মূল্য এবং এই ফ্রিজ কেনার সুবিধা ও বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য এখানে দেওয়া হলো। ওয়ালটন ফ্রিজ গোটা বিশ্ব তথা বাংলাদেশে একটি সুপরিচিত ব্র্যান্ড। এবং এই কোম্পানি বিগত ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই সমস্ত ইলেকট্রনিক্স কাজের সাথে যুক্ত।

ওয়ালটন কোম্পানিটি মানুষের কাছে এত প্রিয় হয়ে ওঠার কারণ হলো এদের দীর্ঘ ওয়ারেন্টি অফার ও লং লাস্টিং প্রোডাক্ট। এই ফ্রিজে একটি মসৃন স্টেনলেস স্টিল ডিজাইন রয়েছে যা অবশ্যই একটি সাধারণ মানুষের কাছে মনমুগ্ধকর হয়ে ওঠে। এছাড়াও এই ফ্রিজের মধ্যে রয়েছে একাধিক কুলিং বিকল্প এবং জল পরিস্রাবনের বিশেষ ব্যবস্থা যা আপনার খাবার কে দীর্ঘ সময়ের জন্য সতেজ রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও ওয়ালটন রিফ্রিজারেটরের প্রাক-সেট তাপমাত্রা সেটিংস এবং ঘরের তাপমাত্রা পর্যবেক্ষণের মতো সুবিধা রয়েছে যাতে আপনি সর্বদা নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনার খাবার সবসময়ই ঠান্ডা এবং তাজা রয়েছে।

ওয়ালটন ফ্রিজ গুলি ছোট এবং শক্তিশালী কিন্তু মজার বিষয়টি হলো এই ফিজে বেশ অনেকটা পরিমাণ খাবার সংরক্ষণের সুবিধা রয়েছে। ওয়ালটন ফ্রিজের একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো আপনাকে দরজা না খুলে ভিতরে কি খাবার আছে তা দেখার সুবিধা প্রদান করে এই ফ্রিজে এবং এই বৈশিষ্ট্যটি যে মানুষদের কাছে সময় খুবই কম তাদের জন্য বেশ উপযুক্ত একটি কারণ হয়ে উঠতে পারে।

বাংলাদেশ ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর 8CFT এর বর্তমান মূল্য
WFE-2H2-GDEL-XX35,990টাকা
WFE-2H2-GDEL-XX(inverter)36,990টাকা
WFE-2H2-GDXX-XX35,490টাকা
WFE-2H2-GDXX-XX(inverter)36,490টাকা
WFB-2E4-GDEL-SC37,990টাকা
WFE-3D8-NEXX-XX(INVERTER)41,490টাকা
WFE-3B0-CRXX-XX(INVERTER)38,990টাকা
WFE-3A7-ELEX-XX37,990টাকা
WFC-3A7-NXXX-XX37,490টাকা
WFE-3A2-ELNX-XX35,990টাকা
WFE-3X9-ELNX-XX36,990টাকা
ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর 8CFT এর বর্তমান মূল্য
ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর 8CFT কেনার সুবিধা

বাজারে উপলব্ধ রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিভিন্ন মডেলের রেফ্রিজারেটর কিন্তু সেই সমস্ত ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে কোনটি আপনার জন্য সঠিক হবে তা নির্ণয় করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। এই ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে একটি হলো ওয়ালটন8CFT জি মডেলটি আপনার জন্য বেশ কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে। এই রেফ্রিজারেটর এর মধ্যে রয়েছে অনেক সুবিধা যা এটি কে আপনার বাড়ির জন্য একটি পছন্দের কারণ করে তুলতে পারে।

ওয়ালটন8CFT রেফ্রিজারেটরের একটি প্রধান সুবিধা হল এর আকার। এই রেফ্রিজারেটরটি মার্কেটে অন্যান্য ব্র্যান্ডগুলোর মত এত বড় আকারের নয় কিন্তু মজার বিষয়টি হলো তবুও এটিতে অনেকটা পরিমাণ খাবার সঞ্চয় করার জন্য যথেষ্ট জায়গা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও এই রেফ্রিজারেটরের আরেকটি সুবিধা হল এর দাম যা খোলা মার্কেটে বা অনলাইন বাজারে সাধারণ মানুষের জন্য বেশ সাশ্রয়ী মূল্যের মধ্যেই আসে।

আরেকটি বিষয় হলো যে, ওয়ালটন8CFT সাধারণ মানুষের জন্য বেশ আকর্ষণীয় ওয়ারেন্টি প্রদান করে। ওয়ালটন প্রতিটি ওয়ালটন ফ্রিজের জন্য 10 বছরের কম্প্রেসার ওয়ারেন্টি প্রদান করে।

অবশেষে বলা যায় ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর বর্তমানে বাংলাদেশে সবচেয়ে ভালো বিকল্পগুলির মধ্যে একটি হয়ে উঠতে পারে। বাড়ি বা কিচেন রুম বড় হোক বা ছোট এই রেফ্রিজারেটর যেকোনো জায়গাতেই বেশ মানানসই এবং মাপসই হয়ে ওঠে। যারা সাশ্রয়ী মূল্যের ফ্রিজ খুঁজছেন তাদের জন্য ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর8CFT একটি দুর্দান্ত বিকল্প হয়ে উঠতে পার।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *