কালী পূজার সময়সূচী ২০২২

Souvik maity
3 Min Read

কালীপূজাকে বাংলায় দীপান্বিতা পুজো বা দীপাবলিও বলা হয়। পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দুর্গাপূজা এবং লক্ষী পূজার পরই শুরু হয়ে যায় কালী পূজার প্রস্তুতি। কালী মায়ের আরাধনা যাতে নির্ভুলভাবে সম্পন্ন হতে পারে, সেই জন্যই এত আগে থেকে তোড়জোড় চলে জোরকদমে। কার্তিক মাসের কৃষ্ণপক্ষের অমাবস্যা তিথিতে হয় এই কালীপুজো বা শ্যামা মায়ের পুজো হয়ে থাকে।

অন্যদিকে আবার, এ এক আনন্দের পূজো বটে। কারণ প্রত্যেক বাঙালি সহ হিন্দু ধর্মের মানুষদের কাছে কালীপুজো অথবা দীপাবলি সেজে ওঠে লক্ষ লক্ষ দ্বীপের আলোয়। যদিও হিন্দু ধর্মের বিভিন্ন তিথিতে বিভিন্ন রূপে পূজা হয় মা কালীর। হিন্দু শাস্ত্র মতে দেবীর আরাধনা সর্বজনবিদিত।

তো চলুন বন্ধুরা, এবছরের অর্থাৎ ২০২২ সালের কালীপুজোর দিনক্ষণ সহ শুভ সময়ে সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

কালী পূজার সময়সূচী
  • কালীপুজোর তারিখ – আগামী ২৪ অক্টোবর , সোমবার পড়েছে দ্বীপান্বিতার পুজো।
  • অমাবস্যা তিথি – ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যা ৪ টে বেজে ৫৭ মিনিট, থেকে ২৫ অক্টোবর ৪টে বেজে ২৬ মিনিট পর্যন্ত অমাবস্যা তিথি থাকবে।
  • অমৃত যোগ – সকাল ৭টা বেজে ২০ মিনিট, থেতে রাত্রি ৩ কে বেজে ১৬ মিনিট পর্যন্ত।

তো বন্ধুরা আমরা আশা করব আপনারা আমাদের উপরিক্ত পোস্টটি পড়ে চলতি বৎসর আগামী দিনে মা কালীর পূজার সময়সূচী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন। এছাড়াও আপনারা যদি এই ধরনের পোস্ট আরো পেতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে সদা সর্বদা জুড়ে থাকবেন।

এছাড়াও আপনারা যদি বিভিন্ন দেশের টাকার মূল্য বাংলাদেশি টাকায় কত তা জানতে চান এবং প্রত্যেকদিনের সোনার মূল্যের আপডেট সঠিকভাবে সবার আগে পেতে চান তাহলে অতি অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট আবারও ভিজিট করবেন।

আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 🙏

কালী পূজার সময়সূচী ২০২২ কবে?

আগামী ২৪ অক্টোবর , সোমবার পড়েছে দ্বীপান্বিতার পুজো। ২৪ অক্টোবরের সন্ধ্যে ৪ টে ৫৭ মিনিট থেকে ২৫ অক্টোবর ৪টে ২৬ মিনিট পর্যন্ত অমাবস্যা তিথি থাকবে। অমৃত যোগ পড়েছে সকাল ৭টা ২০ মিনিট থেতে রাত্রি ৩ ১৬ মিনিট পর্যন্ত।

কালী পুজো কবে হবে

কার্তিক মাসের কৃষ্ণপক্ষের আমাবস্যা টিভিতে কালীপুজো বা শ্যামা পূজা হয়ে থাকে।

কালী পূজার ইতিহাস

তন্ত্র অনুসারে কালী দশমহাবিদ্যার প্রথম দেবী। কেরালা ব্যতীত সমগ্র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং ভারতীয় উপমহাদেশে কালীকে ভগবান শিবের স্ত্রী পার্বতীর রূপ হিসাবে বিশ্বাস করা হয়। কেরালার লোকবিশ্বাস অনুসারে— ভগবান শিবের তৃতীয় নয়ন থেকে রাক্ষসদের ধ্বংস করার জন্য তিনি আবির্ভূতা হন, তাই কেরালায় তাঁকে ভৌরবকন্যা মহাকালী বলা হয়।

দেবী কালীর পুজোর প্রার্থনা মন্ত্রটি কি?

এষ ধুপঃ ওঁ ক্রীং কাল্ল্যৈ নমঃ’

দেবী কালীর পুজোর প্রণাম মন্ত্রটি কি?

‘ওঁ ক্রীং ক্রীং হৃং হৃং হিং হিং দক্ষিণে কালীকে ক্রীং ক্রীং ক্রীং হৃং হৃং হ্রীং হ্রীং হ্রীং স্বহা। ওঁ কালী কালী মহাকালী কালীকে পাপহারিণীধর্মার্থমোক্ষদে দেবী নারায়ণী নমোস্তুতে।’

Share This Article